Home অনুবাদ সালমান রুশদি / দ্য জাগুয়ার স্মাইল পর্ব ৪ / আলম খোরশেদ অনূদিত

সালমান রুশদি / দ্য জাগুয়ার স্মাইল পর্ব ৪ / আলম খোরশেদ অনূদিত

প্রকাশঃ December 10, 2016

সালমান রুশদি / দ্য জাগুয়ার স্মাইল পর্ব ৪ / আলম খোরশেদ অনূদিত
0
0

দ্য জাগুয়ার স্মাইল / পর্ব

নিকারাগুয়ার অনেক রাস্তার মতই কামোয়াপা যাওয়ার পথটাও ছিল ইটে বাঁধানো। সমোসার নিজের একটি ইটের কারখানা ছিল। ’৭২-এর ভূমিকম্পের পর দেশের বড় রাস্তাগুলো সব রাষ্ট্রপতির ইট দিয়ে বাঁধানো প্রায় বাধ্যতামূলক ছিল। সমোসা খুব চড়া দামে তাঁর কারখানার ইট বিক্রি করেন। “কিন্তু আমরা আবিষ্কার করি যে সেই ইটগুলো খসিয়ে ফেলা খুব সহজ,” লুইস কাররিয়ন খুব তৃপ্তি নিয়ে বলেন, “ফলে বিপ্লবের সময় তাঁর ইট নির্মিত রাস্তাগুলোর কারণেই তাদের বাহিনীকে খুব সহজেই আটকে দিতে পারতাম।” কাররিয়নকে রাষ্ট্রপরিচালনার কাজের তুলনায় খুবই তরুণ দেখাত। নিকারাগুয়া “৩৯ বছর বয়সী তরুণ ঔপন্যাসিককেও” খুব প্রবীণ করে তুলেছিল। অবশ্য রামিরেস অন্তত আমার চেয়ে কয়েক বছরের বড় ছিলেন। তবে তিনি আমাকে আবার খুব বেঁটে করে তুলেছিলেন।

আমি সম্প্রতি ন্যুয়র্ক টাইমস ও অন্যত্র পেরুর ঔপন্যাসিক মারিয়ো বার্গাস য়োসার নিকারাগুয়া সম্পর্কিত উক্তিসমূহের বিষয়ে জানতে চাই। “তাঁর অবস্থান এখন এতটাই দক্ষিণে সরে গেছে যে আমি তাঁর সমালোচনায় বিস্মিত হইনি।” তাহলে বার্গাস য়োসার এই পরামর্শ, পশ্চিমা সমর্থনের যোগ্য আসলে বিপ্লবী বা প্রতিবিপ্লবীরা নয়, বরং সান্দিনিস্তা বিরোধী গণতান্ত্রিক নিকারাগুয়রা, যারা সম্ভবত এখন সংখ্যাগরিষ্ঠ, সম্পর্কে আপনার অভিমত কী?” কাররিয়ন ও রামিরেস দুজনেই হাসেন। “এখানে এমন কোনও সংখ্যাগরিষ্ঠ নেই,” রামিরেস বললেন, “আপনার চোখে পড়লে আমাকে বলবেন।” বার্গাস য়োসা আরও ইঙ্গিত করেন যে সান্দিনিস্তারা একটি ছদ্মবেশী সোভিয়েতধর্মী সংগঠন, মিশ্র অর্থনীতি ও বহুত্ববাদী গণতন্ত্রমুখী তার বিভিন্ন কর্মসূচিসমূহ লোকদেখানো তৎপরতা ছাড়া কিছু নয়, এবং এফএসএলএন এগুলো পালন করতে বাধ্য হচ্ছে মূলত বাইরের চাপে। (যদিও দ্রুত তিনি একথাও বলতে ভোলেন না যে তিনি কন্ট্রাদেরও সমর্থন করেন না।)

রামিরেসকে এসব কথায় সত্যিকারভাবে বিরক্ত মনে হলো। যুদ্ধ না থাকলে, জরুরি অবস্থা যতটা অনুমোদন দেয় তার চেয়ে বেশি আরও অনেক ক্ষমতাই জনগণকে দেওয়া যেত, তিনি বলেন। অর্থাৎ শান্তিকালীন সময়ে আরও অধিক গণতন্ত্রই থাকতো, কম নয়। “আমাদের আত্মনিয়ন্ত্রণের অধিকার রয়েছে। আমাদের আভ্যন্তরীণ কাঠামো আমাদের বিষয়, আর কারও নয়।”

“কিন্তু”, আমি বলি, “যখন কন্ট্রাদের জন্য ১০০ মিলিয়ন ডলার বরাদ্দ করা হয়েছে, এখন তাহলে স্পষ্টতই কেউ এটাকে তাদের বিষয় বলে মনে করছে।” লুইস কাররিয়ন উত্তর দেন, “১০০ মিলিয়ন ডলারটা বিষয় নয়। প্রতিবিপ্লবীরা সত্যিকারের হুমকি নয়।” তার অভিমত কন্ট্রাবাহিনী কার্যত পরাজিত হয়েছে। “ইদানিং তারা জোর চেষ্টা সংঘর্ষে না জড়াতে, তাদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির ভয়ে। তারা এখন সন্ত্রাসবাদী কর্মকাণ্ড, বেসামরিক জনগণ ও উৎপাদনের ক্ষতি করার লক্ষ্যে মনোনিবেশ করেছে। আমরা এরকম আরও কিছু আশা করছি। আমার মনে হয় তারা শহরগুলোতে এরকম কিছু করবে। এমনকি মানাগুয়াতেও, এখন যেহেতু তাদের হাতে বাড়তি পয়সা আছে, কিন্তু আমরা প্রস্তুত। তাদের মনোবল ও নতুন সদস্য সংগ্রহের বিশাল সমস্যা রয়েছে। গত দুই বছরে তাদের সংখ্যা কয়েক হাজার কমে গেছে। না আসলে, প্রকৃত হুমকি, সিআইএ।”

আহা, সিআইএ, আলোচনায় এর প্রবেশে আমার স্বতঃস্ফূর্ত প্রতিক্রিয়া ছিল একাধারে প্রাচ্যদেশীয় ও পাশ্চাত্যসুলভ। আমার ভেতরের পশ্চিমা স্বরটি, ষড়যন্ত্রতত্ত্বে ত্যক্তবিরক্ত, বিড়বিড় করে বলে- “আবার এদের দায়ী করা নয়, ঢের হয়েছে।” কিন্তু প্রাচ্যস্বরটি বোঝে যে সিআইএ ব্যাপারটি সত্যি সত্যি অস্তিত্বশীল এবং খুবই ক্ষমতাবান, যদিও একে খুব সহজেই দোষী সাব্যস্ত করা যায়, তবে তার ক্ষমতাকে খাটো করে দেখানোটাও একটু বহুব্যবহৃত ও সংশয়বাদী চিন্তা। মধ্য-আমেরিকায় সিআইএ কাজ করতো, এমন একটি ব্যবস্থার মোহনীয় আড়ালে যাকে সে চমৎকারভাবে ডাকতো ইউনিলেটারালি কন্ট্রোলড্ লাটিনো অ্যাসেটস বা UCLA বলে। এখন যেহেতু তারা খোলাখুলি অভিযানেই নামতে পারছে তখন সেই সম্পত্তিগুলো নিশ্চয়ই একটা নিজস্ব ইচ্ছা নিয়ে কাজ করবে। ১৯৮৬-৮৭ সালে নিকারাগুয়া বাবদে সিআইএর বাজেটের রক্ষণশীল পরিমাণ ৪০০ মিলিয়ন ডলার, কন্ট্রাদের জন্য বরাদ্দকৃত অর্থের চার গুণেরও বেশি, তার সঙ্গে যোগ করুন তার প্রতিবেশীদের কিনে ফেলার জন্য রিগান প্রশাসনের ব্যয় করা ৩০০ মিলিয়ন ডলার, তাহলে আপনি পাচ্ছেন ৮০০ মিলিয়ন ডলার এর এক বিশাল অর্থ যা নোংরা কৌশল আর অস্থিতিশীলতা তৈরি করার মাধ্যমে একটি দেশকে, যার অধিবাসীর সংখ্যা ৩০ লাখেরও কম, নতজানু করার জন্য খরচ করা হচ্ছে। (ব্যান্ড এইড, স্পোর্ট এইড, লাইভ এইড ইভেন্টের মাধ্যমে উপার্জিত তহবিলের এটা এক চতুর্থাংশেরও কম, স্রেফ তুলনা করার জন্য বলছি।)

করিন্তোর বন্দরে মাইন বসিয়েছিল সিআইএ। তাদের এইসব খোলামেলা অভিযানে এখন নিকারাগুয়া সরকার সত্যিকার সমস্যায় পড়বে। কাররিয়ন বলেন, এরকম আগ্রাসনের মুখে আমরা বেশি কিছু করতে পারব না। আমাদের সেরকম রসদও নেই। কাররিয়ন বিশ্বাস করতেন যে, রিগ্যান যখন বুঝলেন যে কন্ট্রারা তাদের কাজ করে দেবে না, তখন কোন না কোন ছুতোয় সরাসরি মার্কিন আগ্রাসনের ঘটনা ঘটবে। আমি আবিষ্কার করি যে সান্দিনিস্তা নেতাদের প্রায় সবারই একই অভিমত। রামিরেস বলেন, “রিগ্যান নিকারাগুয়ার ইসুতে এতটা ব্যক্তিগত মানসম্মান বিনিয়োগ করে ফেলেছেন যে তিনি তাকে ধ্বংস করার চেষ্টা না করে অফিস ছাড়বেন না।” মার্কিন আগ্রাসনের বিরুদ্ধে সরকার কৃষকদের হাতে অস্ত্র তুলে দিয়ে প্রস্তুতি নিচ্ছে। “আমাদের শ্রেষ্ঠ প্রতিরক্ষা হচ্ছে,” কাররিয়ন বলেন, “সশস্ত্র জনগণ।” সেখানে আমার অবস্থানকালে আমি বহুবার এই কথাটি শুনেছি। কয়েক হাজার নিকারাগুয়া সাধারণ জনগণকে এ-কে ৪৭ স্বয়ংক্রিয় রাইফেল ও অন্যান্য অস্ত্রশস্ত্র দেয়া হয়েছে। পেন্টাগনকে যদি বোঝান যায় যে মার্কিন লাশের সংখ্যা প্রচুর হবে তাহলে হয়ত এই আগ্রাসনকে রাজনৈতিকভাবে গেলানো যাবে না। “নিকারাগুয়া তাদের জন্য গ্রানাদা হবেনা কিছুতেই” কাররিয়ন বলেন, “এটা খুব অল্প সময়ের ব্যাপার হবে না।”

আমি মনশ্চক্ষে লাশের পাহাড় দেখতে শুরু করি। আমি তাই বিষয় বদলে সের্হিও রামিরেসকে হেরাল্ড ট্রিবিউনে প্রকাশিত ইন্টারনেশনাল লিগ অভ হিউম্যান রাইটস এর একটি প্রতিবেদন সম্পর্কে জানতে চাই। “নিকারাগুয়ার দমনপীড়ন মধ্য আমেরিকার অন্যান্য অঞ্চলের মত এতটা রক্তাক্ত ও দৃশ্যমান নয়” ন্যুয়র্কভিত্তিক দলটির কর্মসূচি পরিচালক নিনা এইচ শিয়া বলেন, “তবে তা অনেক বেশি অলক্ষিতে অনিষ্টকর ও সর্বব্যাপী।”

রামিরেস শুরু করেন এভাবে যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মানবাধিকার সংগঠন নিকারাগুয়াকে আরও ভালো প্রত্যয়নপত্র দিয়েছে। তারপর মেজাজ খারাপ করে বলেন, “দেখুন আমরা যদি এল সালবাদরের মত লোকদের হত্যা ও অত্যাচার না করে থাকি, তাহলে আমরা ভৌতিক রকমের সূক্ষ্ণ বটে।”

একটা গরু রাস্তা পার হচ্ছিল, তাই চালক জোরে ব্রেক কষে। আমাদের অগ্রভাগের নিরাপত্তা কর্মীরা, যারা সবাই কমলারঙা দস্তানা পরা ছিলেন, থেমে যান। “নিজেদের প্রাণীকূল সম্পর্কে আমাদের ধারণা থাকা উচিত।” বলেন লুইস। “একটি গরু কখনোই তাঁর নির্বাচিত নিশানা থেকে সরে যাবে না। অবশ্য কুকুর তেমন নির্ভযোগ্য নয়।”

[চলবে…]

 

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন

লেখাগুলো সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করুনঃ

LEAVE YOUR COMMENT

Your email address will not be published. Required fields are marked *

hijal
Close